মন্ত্রণালয়ের গাড়িতে বিএনপির হামলা, পুলিশের লাঠিচার্জ

0
15
বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীেদর ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ টিয়ারশেল গ্যাস নিক্ষেপ ও লাঠিচার্জ করে। ছবি: সংগৃহীত

নিজস্ব প্রতিবেদক:

দুর্নীতি মামলায় সাজা পেয়ে কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সুপ্রিম কোর্টের মূল ফটকে অবস্থান কর্মসূচিতে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়সহ কয়েকটি গাড়িতে ভাঙচুর চালিয়েছে বিএনপির বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা।

এ সময় দুই সাংবাদিক আহত হন। পরে পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারশেল গ্যাস নিক্ষেপ ও লাঠিচার্জ করে।

এর আগে আজ মঙ্গলবার দুপুর ১টার কিছুক্ষণ আগে থেকে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমানের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের মূল ফটকে জড়ো হন। প্রধান বিচারপতি যেখানে বিচার কাজ পরিচালনা করেন তার সামনের মূল রাস্তায় বসে যান তারা। এসময় বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ জানিয়ে তারা স্লোগান দিতে থাকেন। তাদের এই অবস্থানের ফলে গণপরিবহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে পুলিশ অবস্থানকারীদের ওপর লাঠিচার্জ করে ও টিয়ারশেল গ্যাস নিক্ষেপ করে।

এ সময় পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়সহ বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করেন বিক্ষুব্ধ কর্মীরা। এ হাবিব ও রহমান নামে দুই ফটোসাংবাদিক আহত হন।

সুপ্রিম কোর্টের নিরাপত্তায় কোর্ট এলাকায় পুলিশ নিয়োজিত রয়েছে। বিএনপির বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা যেন কোর্টের ভেতরে প্রবেশ করতে না পারে, সেজন্য কোর্টের সকল গেটে তালা লাগিয়ে দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে ডিএমপির রমনা বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) সাজ্জাদুর রহমান বলেন, পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই বিএনপি ও এর অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীরা হঠাৎ করে হাইকোর্টের মতো স্পর্শকাতর এলাকায় অবস্থান নেয়। তারা জনভীতি তৈরি করে যানচলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করে।

তিনি বলেন, পুলিশের পক্ষ থেকে বারবার তাদের অনুরোধ করা হলেও তারা রাস্তা থেকে সরছিল না। ওই সময় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমানের মতো নেতা উপস্থিত ছিলেন। পরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হলে বিএনপির নেতাকর্মীরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে।

এ সময় তারা বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে বলে জানান ডিসি সাজ্জাদ। পুরো পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে।এ ঘটনায় আইন ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here