দেশে বর্তমানে স্বাক্ষরতার হার বেড়েছে ২২ ভাগ- -শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী

0
326

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও ভুক্ত এখন আর তদবির করে হবে না। প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তথ্য এখন ইন্টারনেটে পাওয়া যায় যায়। কোন প্রতিষ্ঠান কোন যোগ্যতা রয়েছে তা এখন আর অজানা থাকে না। দেশ এখন শিক্ষা প্রসারে এগিয়েঢ যাচ্ছে। তাই আমরা এলাকার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো উন্নয়ন করতে সক্ষম হয়েছি। ঢাকাস্থ শিবচর উপজেলা সমিতির বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ ও পার্লামেন্টারী পার্টির সেক্রেটারী নূর-ই-আলম চৌধুরী এমপি এ কথা বলেন। ঢাকাস্থ শিবচর উপজেলা সমিতির বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- শিক্ষা বিষয়ক উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিরি বক্তব্যে শিক্ষা বিষয়ক উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন- আওয়ামী লীগের শাসনামলে দেশে ২২ ভাগ স্বাক্ষরতার হার বৃদ্ধি পেয়েছে। উপমন্ত্রী বলেন,’২০০১ সালের শুরুতে জাতিসংঘের হিসাব অনুযায়ী তখন স্বাক্ষরতার হার ছিল প্রায় ৬৫ ভাগ। বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর ২০০৯ সাল পর্যন্ত তা কমে দাঁড়িয়েছিল শতকরা ৫২ ভাগে। ২০০৯ সালের পর থেকে এখন পর্যন্ত ৫২ ভাগ থেকে বেড়ে স্বাক্ষরতার হার দাঁড়িয়েছে ৭৪ পারসেন্ট।’
বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) বেলা ১১ টার দিকে উপজেলার ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী অডিটোরিয়ামে ঢাকাস্থ শিবচর উপজেলা সমিতির বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন,’ আওয়ামী লীগ সরকার শিক্ষাবান্ধব সরকার। শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের প্রতিটি বিষয় প্রধানমন্ত্রী নিজ দায়িত্বে খোঁজ খবর রাখেন। যার ফলশ্রæতিতে দেশে শিক্ষার মান বেড়েছে। প্রধানমন্ত্রী শিক্ষার মান উন্নয়নে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন।’
তিনি বলেন,’ ২০০১ সালে ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে আওয়ামী লীগ ক্ষমতা হারায়। তখন শিক্ষার হার রেখে গিয়েছিল শতকরা ৬৫ ভাগেরও বেশি। আর বিএনপি আসার পর তা কমে দাঁড়িয়েছিল ৫২ ভাগে। সেখান থেকেই আওয়ামীলীগ সরকার শিক্ষার হার বৃদ্ধি করেছে। ২০০১ সালে আওয়ামী লীগের রেখে যাওয়া শিক্ষার হার কমে গিয়েছিল ১৩ ভাগ। এরপর বর্তমান পর্যন্ত শিক্ষার হার বেড়েছে ২২ ভাগ।’
তিনি বলেন,’যে দেশের মানুষ এক সময় খেতে- পড়তে পারতো না। মাথার উপর কোন ঠাঁই ছিল না, সেই দেশ এখন সফটওয়ার রপ্তানিতে সক্ষমতা রাখে।’ ঢাকাস্থ শিবচর সমিতির বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে সমিতির সভাপতি আবদুস সামাদ মিয়ার সভাপতিত্ব করেন।
ঢাকাস্থ শিবচর উপজেলা সমিতির আয়োজনে মেধাবী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী এ কথা বলেন।
অনুষ্ঠানে এসএসসি ও এইচএসসিতে জিপিএ- ৫ প্রাপ্ত ১২২ জনকে সংবর্ধনা ও বৃত্তি এবং ৮০ জনকে উচ্চ শিক্ষার জন্য শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করেছে প্রতিষ্ঠানটি।
এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাদারীপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিয়াজ উদ্দিন খান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহাবুদ্দিন মোল্যা, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি মুনির চৌধুরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার উত্তম প্রসাদ পাঠক, শিবচর উপজেলা চেয়ারম্যান সামসুদ্দিন খান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান, শিবচর উপজেলা সমিতির সাধারন সম্পাদক এস.এম লোকমান হোসেনপ্রমুখ। সমিতির শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক মো. সেলিম আকন্দ অনষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন। সভা পরিচালনা করেন ইউসুফ মুরাদ খান পারভেজ ও তুহিন রেজা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here